যমুনা ব্যাংকের ডিভিডেন্ড ও প্রান্তিক প্রকাশ
শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত যমুনা ব্যাংক লিমিটেড গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ তারিখে সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এবং চলতি হিসাববছরের প্রথম প্রান্তিকের (জানুয়ারি’২০-মার্চ’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।
সূত্র মতে, ২০১৯ হিসাব বছরের জন্য ব্যাংকটি শেয়ারহোল্ডারদেরকে ১৫ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড  ঘোষনা করেছে।
আলোচিত বছরে সমন্বিতভাবে যমুনা ব্যাংকের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩.৩৮ টাকা। আগের বছর ইপিএস ছিল ৩.৭ টাকা ।
আলোচিত বছরে ব্যাংকের সমন্বিত শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ছিল ৭.৯৩ টাকা। আগের বছর ক্যাশ ফ্লো ছিল ০.২ টাকা (নেগেটিভ)।
গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ তারিখে সমন্বিতভাবে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য ছিল ২২.৭৭ টাকা।
আগামী ২৭ আগস্ট সকাল ১১ টায় ব্যাংকটির ১৯ তম বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। এজিএমের জন্য রেকর্ড তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ জুলাই।
অপরদিকে প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি’২০-মার্চ’২০) ব্যাংকটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৪২ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে সমন্বিত ইপিএস ছিল ০.৭০ টাকা।
প্রথম প্রান্তিকে ব্যাংকটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ছিল ১০.৭৬ টাকা। গত বছরের একই সময়ে ক্যাশ ফ্লো ছিল ৬.৮৩ টাকা (নেগেটিভ)।
গত ৩১ মার্চ, ২০২০ তারিখে সমন্বিতভাবে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ২৪.৫০ টাকা।
রেনউইকের মুনাফা ২৬ শতাংশ কমেছে
শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত রেনউইক যজ্ঞেশ্বরের শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) ২৬ শতাংশ কমেছে। আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় চলতি অর্থবছরের ৯ মাসে (জুলাই’১৯-মার্চ’২০) এই মুনাফা কমেছে।ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
চলতি অর্থবছরের ৯ মাসে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ২.৫৯ টাকা। আগের বছরের একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ৩.৫২ টাকা। এ হিসাবে মুনাফা কমেছে ০.৯৩ টাকা বা ২৬ শতাংশ।
এদিকে চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিকের ৩ মাসে অর্থাৎ জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত সময়ে শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ০.৮৮ টাকা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ০.৪৯ টাকা। সে হিসেবে কোম্পানিটির মুনাফা ০.৩৯ টাকা বা ৮০ শতাংশ বেড়েছে।
২০২০ সালের ৩১ মার্চ কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৩৩.২৫ টাকায়।
জাহিনটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের তৃতীয় প্রান্তিক প্রকাশ
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র খাতের কোম্পানি জাহিনটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ বাংলাদেশ লিমিটেড তৃতীয় প্রান্তিক (জানু-মার্চ’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
জানা যায়, তৃতীয় প্রান্তিক (জানু’-মার্চ’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে ১.৩৩ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে লোকসান ছিল ০.৮৬ টাকা।
এদিকে, ৯ মাসে (জুলাই’১৯-মার্চ’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় লোকসান হয়েছে ২.২২ টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে লোকসান ছিল ১.৩৭ টাকা।
এছাড়া শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ১.২৯ টাকা নেগেটিভ। ৩১ মার্চ ২০২০ পর্যন্ত কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) হয়েছে ২০.২৬ টাকা।
ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টসের তৃতীয় প্রান্তিক প্রকাশ
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টস ব্লেন্ডার্স লিমিটেড চলতি হিসাববছরের তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি-মার্চ’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। কোম্পানি সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।
অনিরীক্ষিত প্রতিবেদন অনুসারে, তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি’২০-মার্চ’২০) ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টসের শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৩ টাকা ৭১ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি ৯১ পয়সা লোকসান হয়েছিল।
অন্যদিকে প্রথম তিন প্রান্তিক তথা হিসাববছরের প্রথম ৯ মাসে (জুলাই’১৯-মার্চ’২০) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬ টাকা ৯ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ২ টাকা ৮ পয়সা।
তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ছিল ৬৫ টাকা ৪৭ পয়সা। বছরের একই সময়ে ক্যাশ ফ্লো ছিল ১২৯ টাকা ৮১ পয়সা।
গত ৩১ মার্চ, ২০২০ তারিখে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ১৭৮ টাকা ৮৫ পয়সা।

Leave a comment