রূপালী ব্যাংকের লভ্যাংশ ঘোষণা
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকিং খাতের কোম্পানি রূপালী ব্যাংক লিমিটেড গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ তারিখে সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত বছরের জন্য ব্যাংকটি শেয়ারহোল্ডারদেরকে ৫ শতাংশ স্টক দেবে।আজ রোববার (২৮ জুন) অনুষ্ঠিত ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের সভায় লভ্যাংশ সংক্রান্ত এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সিদ্ধান্তটি বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদনক্রমে কার্যকর হবে।
রূপালী ব্যাংক সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে। সর্বশেষ বছরে সমন্বিতভাবে অর্থাৎ সহযোগী প্রতিষ্ঠানের আয়সহ রূপালী ব্যাংকের সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (Consolidated EPS) হয়েছে ১ টাকা ৩৮ পয়সা। আগের বছর সমন্বিত ইপিএস ছিল ৯৯ পয়সা।আলোচিত বছরে এককভাবে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি আয় (Solo EPS) হয়েছে ১ টাকা ৩২ পয়সা। আগের বছর একক ইপিএস ছিল ৯২ পয়সা।
সর্বশেষ বছরে ব্যাংকটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ছিল মাইনাস ৭৫ টাকা ৩০ পয়সা। আর এককভাবে ক্যাশ ফ্লো ছিল মাইনাস ৭৫ টাকা ৪৬ পয়সা।গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ তারিখে সমন্বিতভাবে  ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ৪১ টাকা ১৪ পয়সা, আর এককভাবে ছিল ৪০ টাকা ৭৫ পয়সা।
আগামী ৩ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় ডিজিটাল প্ল্যাটফরমে রুপালী ব্যাংকের ৩৪তম বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। এর জন্য রেকর্ড তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ১৯ জুলাই, রোববার।
প্রিমিয়ার ব্যাংকের লভ্যাংশ ঘোষণা
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকিং খাতের কোম্পানি প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ তারিখে সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত বছরের জন্য ব্যাংকটি শেয়ারহোল্ডারদেরকে ১০ শতাংশ লভ্যাংশ দেবে। এর মধ্যে ৫ শতাংশ নগদ ও বাকী ৫ শতাংশ বোনাস।প্রিমিয়ার ব্যাংক সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে। সর্বশেষ বছরে সমন্বিতভাবে অর্থাৎ সহযোগী প্রতিষ্ঠানের আয়সহ প্রিমিয়ার ব্যাংকের সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (Consolidated EPS) হয়েছে ৩ টাকা ৬১ পয়সা। আগের বছর সমন্বিত ইপিএস ছিল ২ টাকা ৪৬ পয়সা।
সর্বশেষ বছরে এককভাবে প্রিমিয়ার শেয়ার প্রতি আয় (Solo EPS) হয়েছে ৩ টাকা ৬১ পয়সা। আগের বছর সমন্বিত ইপিএস ছিল ২ টাকা ৪১ পয়সা।আলোচিত বছরে ব্যাংকটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ছিল ৩ টাকা ৫৭ পয়সা। আর এককভাবে ছিল ৩ টাকা ৫৬ পয়সা।গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ তারিখে সমন্বিতভাবে  ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ২০ টাকা ২৯ পয়সা, আর এককভাবে ১৬ টাকা ৬৮ পয়সা।
আগামী ১০ আগস্ট, সোমবার ডিজিটাল প্ল্যাটফরমে ব্যাংকটির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। এর জন্য রেকর্ড তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ২১ জুলাই।
ডিভিডেন্ড ঘোষনা করেছে আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকিং খাতের কোম্পানি আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ তারিখে সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য ১৩ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড ঘোষনা করেছে।আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।সর্বশেষ বছরে সমন্বিতভাবে অর্থাৎ সহযোগী প্রতিষ্ঠানের আয়সহ আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (Consolidated EPS) হয়েছে ২ টাকা ২৮ পয়সা। আগের বছর সমন্বিত ইপিএস ছিল ২ টাকা ৩০ পয়সা।
আলোচিত বছরে এককভাবে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি আয় (Solo EPS) হয়েছে ২ টাকা ২৭ পয়সা। আগের বছর এককভাবে ব্যাংকটির  ইপিএস হয়েছিল ২ টাকা ২৬ পয়সা।সর্বশেষ বছরে ব্যাংকটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ছিল ১১ টাকা ৫৮ পয়সা। আগের বছর তা ছিল মাইনাস ১২ টাকা ৯৮ পয়সা।এককভাবে সর্বশেষ বছরে ক্যাশ ফ্লো ছিল ১১ টাকা ৭৪ পয়সা, আগের বছর যা মাইনাস ১২ টাকা ৫৯ পয়সা ছিল।
গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ তারিখে সমন্বিতভাবে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ২১ টাকা ১৩ পয়সা, আর এককভাবে ছিল ২১ টাকা ০৩ পয়সা।আগামী ৩ সেপ্টেম্বর, বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় ডিজিটাল প্ল্যাটফরমে আল আরাফা ইসলামী ব্যাংকের ২৫তম বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। এর জন্য রেকর্ড তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ৩০ জুলাই, বৃহস্পতিবার।
ইউসিবি’র ডিভিডেন্ড ঘোষণা
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংক খাতের কোম্পানি ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ সমাপ্ত বছরে শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ৫ শতাংশ ক্যাশ ও ৫ শতাংশ স্টকসহ মোট ১০ ডিভিডেন্ড দেওয়ার সুপারিশ করেছে। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।আলোচ্য সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত আয় (ইপিএস) হয়েছে ২.৪৬ টাকা। এর আগের বছর একই সময়ে ইপিএস ছিল ২.১৬ টাকা।
সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সমন্বিত প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) দাঁড়িয়েছে ২৮.৭৭ টাকা। আর শেয়ার প্রতি সমন্বিত কার্যগরি নগদ প্রবাহ (এনওসিএফপিএস) হয়েছে ২.৬১ টাকা।কোম্পানির বার্ষিক সাধারন সভা (এজিএম) আগামী ৩ সেপ্টেম্বর, সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত হবে। ডিভিডেন্ড সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট আগামী ১৯ জুলাই নির্ধারণ করা হয়েছে।
ইসলামী ব্যাংকের লভ্যাংশ ঘোষণা
পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকিং খাতের কোম্পানি ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ তারিখে সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। আলোচিত বছরের জন্য ব্যাংকটি শেয়ারহোল্ডারদেরকে ১০ শতাংশ লভ্যাংশ দেবে। এর পুরোটাই নগদ।আজ শনিবার (২৭ জুন) অনুষ্ঠিত ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের সভায় আলোচিত প্রতিবেদন পর্যালোচনা ও অনুমোদনের পর এ লভ্যাংশ ঘোষণা করা হয়। ইসলামী ব্যাংক সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।
সর্বশেষ বছরে সমন্বিতভাবে অর্থাৎ সহযোগী প্রতিষ্ঠানের আয়সহ ইসলামী ব্যাংকের সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (Consolidated EPS) হয়েছে ৩ টাকা ৪০ পয়সা। আগের বছর সমন্বিত ইপিএস ছিল ৩ টাকা ৯২ পয়সা।অন্যদিকে সর্বশেষ বছরে এককভাবে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি আয় (Solo EPS) হয়েছে ৩ টাকা ৩১ পয়সা। গত বছর একক ইপিএস ছিল ৩ টাকা ৭৭ পয়সা। আলোচিত বছরে ব্যাংকটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ছিল ২৯ টাকা ৬ পয়সা। আগের বছর তা ছিল মাইনাস ২ টাকা ৯৫ পয়সা।
অন্যদিকে এককভাবেও ব্যাংকের শেয়ার প্রতি নেট অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ছিল ২৮ টাকা ৮২ পয়সা, গত বছরের একই সময়ে সলো ক্যাশ ফ্লো ছিল মাইনাস ৩ টাকা ৩১ পয়সা।গত ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ তারিখে সমন্বিতভাবে  ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ৩৬ টাকা ৮৮ পয়সা, আর এককভাবে এনএভিপিএস ছিল ৩৬ টাকা ৪৩ পয়সা।
আগামী ২০ আগস্ট, সকাল সাড়ে ১১ টায় ব্যাংকটির ৩৭বম বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) ডিজিটাল প্ল্যাটফরমের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হবে। এর জন্য রেকর্ড তারিখ ঠিক করা হয়েছে ২১ জুলাই।আজ অনুষ্ঠিত ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড-এর পরিচালনা পর্ষদের বৈঠক সভাপতিত্ব করেন ব্যাংকের চেয়ারম্যান  প্রফেসর মোঃ নাজমুল হাসান, পিএইচডি। ভার্চুয়্যাল কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত এই পর্ষদ সভায় ভাইস চেয়ারম্যান ইউসিফ আব্দুল্লাহ আল রাজী ও মোঃ সাহাবুদ্দিন, পরিচালক ও আইডিবি প্রতিনিধি ড. আরিফ সুলেমানসহ অন্যান্য পরিচালকবৃন্দ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মোঃ মাহবুব উল আলম এবং ডেপুটি ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ও কোম্পানি সচিব জে.কিউ.এম হাবিবুল্লাহ, এফসিএস অংশগ্রহণ করেন।
আইডিএলসির এজিএম অনুষ্ঠিত, ৩৫% নগদ লভ্যাংশ অনুমোদন
দেশের সর্ব বৃহৎ আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের ৩৫ তম বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) গতকাল শনিবার (২৭শে জুন) ডিজিটাল প্ল্যাটফরমের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এজিএমে শেয়ারহোল্ডাররা কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের সুপারিশকৃত  ৩৫% নগদ লভ্যাংশ (শেয়ার প্রতি ৩.৫০ টাকা) অনুমোদন করেছেন।এজিএমে কোম্পানি চেয়ারম্যান আজিজ আল মাহমুদ এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আরিফ খান বক্তব্য রাখেন।
এজিএমে বলা হয়, শক্তিশালী প্রশাসনিক কাঠামো এবং গ্রাহক-কেন্দ্রিক প্রতিষ্ঠান হওয়ার কারণে, আইডিএলসি আর্থিক বাজারে তাদের শীর্ষস্থান অব্যাহত রেখেছে, এবং তীব্র প্রতিযোগিতামূলক বাজার পরিস্থিতি থাকা সত্ত্বেও ২০১৯ সালে স্থিতিশীল অবস্থান ধরে রেখেছে। ২০১৯ এর শেষে, আইডিএলসি গ্রুপ এর মোট লোন পোর্টফোলিও ১০% বৃদ্ধি পেয়ে বাংলাদেশী টাকায় ৯,২৩৫ কোটি টাকা (পাঁচ বছরের কিউমুলেটিভ এভারেজ গ্রোথ রেট (সিএজিআর) ১৪.৪৩%) এ পৌঁছেছে। আইডিএলসি ফিন্যান্স লিমিটেড ২০১৯ সালে ৩.০৭% মন্দ ঋণের হার বজায় রেখে তাদের ব্যাবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে যেখানে বাজারের সামষ্টিক গড় হার ১০% এর বেশি। শক্তিশালী ও মানসম্পন্ন পোর্টফোলিও বৃদ্ধির বিষয়ে আমাদের প্রতিশ্রুতি এ অর্জনে সহায়ক হয়েছে বলে সভায় দাবি করা হয়।
সভার শুরুতে, গ্রুপ কোম্পানি সেক্রেটারি, মোঃ জোবাইর রহমান খান সকল সম্মানিত শেয়ারহোল্ডার এবং অন্যান্য অংশগ্রহণকারীদের স্বাগত জানান ও পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের পরিচয় করিয়ে দেন।
এজিএমে আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের র মধ্যে পরিচালক আতিকুর রহমান, মোঃ আবদুল ওয়াদুদ, মাহিয়া জুনেদ, মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান, মোঃ কামরুল হাসান, সৈয়দশাহরিয়ার আহসান, স্বতন্ত্র পরিচালক নিয়াজ হাবিব ও মতিউল ইসলাম নওশাদ উপস্থিত ছিলেন। আরও উপস্থিত ছিলেন সিইও ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরিফ খান,  সিএফও মাসুদ করিম মজুমদার সহ বিপুল সংখ্যক শেয়ারহোল্ডার ও কোম্পানির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।
চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক উভয়েই শেয়ারহোল্ডারদের স্বাগত জানান এবং আইডিএলসিতে তাঁদের অব্যাহত সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। আইডিএলসি কিভাবে তার সহকর্মীদের কঠোর পরিশ্রম এবং কৌশলগত দক্ষতার মাধ্যমে আর্থিক কর্মক্ষমতা অর্জন করেছে তা তারা তুলে ধরেন । পাশাপাশি ২০১৯ সাল পর্যন্ত যে স্থিতিশীল এবং টেকসই ব্যবসায়িক চালিকা শক্তি তৈরি করেছে এবং তার উপর ভিত্তি করে আগামীতে ক্রমবর্ধমান বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে অংশগ্রহণের প্রয়াস ব্যক্ত করে। শেয়ারহোল্ডারগণও আইডিএলসি এই উন্নতিকে সাধুবাদ জানান।

Leave a comment